the biggest site of
General Knowledge
for knowledge seekers

নদী সম্মন্ধীয় সংক্ষিপ্ত প্রশ্নউত্তর
Short Questions about River

» পাহাড়, হ্রদ, প্রস্রবণ প্রভৃতি উচ্চ ভূমিতে সৃষ্ট ক্ষুদ্র ক্ষুদ্র স্রোতধারার মিলিত প্রবাহ নির্দিষ্ট প্রাকৃতিক খাত দিয়ে প্রবাহিত হয়ে যখন অপর কোনো জলাশয়, হ্রদ বা সাগরে মিলিত হয় তখন ঐ প্রবাহকে নদী বলা হয়। » শাখা-প্রশাখাসহ বাংলাদেশে নদ-নদীর সংখ্যা ২৩০টি। » বাংলাদেশে নদনদীর মোট দৈর্ঘ্য ২৪,১৪০ কিমি (প্রায়)। » দৈর্ঘ্যর দিক থেকে ব্রহ্মপুত্র (২৮৫০ কিমি) নদের অবস্থান বিশ্বে ২২ তম এবং গঙ্গার (২,৫১০ কিমি) অবস্থান ৩০ তম।
» পানিসম্পদ মন্ত্রণালয়ের অধীন ১৯৭৭ সাথে বাংলাদেশে নদী গবেষণা ইনস্টিটিউট ঢাকায় প্রতিষ্ঠিত হয়। » বর্তমান নদী গবেষণা ইনস্টিটিউট হারুকান্দি, ফরিদপুর অবস্থিত। » প্রতিবেশী দেশের (ভারত ও মিয়ানমার) সাথে বাংলাদেশের ৫৮ টি নদীর আন্তঃসীমান্ত বা অভিন্ন নদী আছে। » ভুটান, ভারত, চীন এবং বাংলাদেশের মধ্যে প্রবাহিত নদীর ব্রহ্মপুত্র। » নেপাল, ভারত, চীন ও বাংলাদেশের মধ্যে প্রবাহিত নদী গঙ্গা। » মিয়ানমার ও বাংলাদেশের মধ্য প্রবাহিত নদী ৩টি (সাঙ্গু, মাতামুহুরী ও নাফ)। » বাংলাদেশের দীর্ঘতম নদীপ্রণালী সুরমা-মেঘনা (৬৬৯ কিমি) নদী প্রণালী। » » বাংলাদেশের নদনদী সম্মন্ধীয় বিস্তারিত নিচে বর্ণনা করা হলো।
¤
নাব্য নদীঃ শুকনা মৌসুমে নদীতে ১ লক্ষ কিউসেক লিটার পানি থাকলে তাকে নাব্য নদী বলে।
¤
মোহনাঃ নদী যে স্থানে সমুদ্রে বা হ্রদে মিলিত হয় তাকে মোহন বলে।
¤
বাংলাদেশের বৃহত্তম নাব্য নদী কোনটি? ***
:
মেঘনা।
¤
নদীর বিজ্ঞানসম্মত বিদ্যাকে কী বলে? **
:
পোটোমলোজি (Potomology) বলে।
¤
বাংলাদেশের নদনদীর মোট দৈর্ঘ্য কত?
:
২৪,১৪০ কিলোমিটার প্রায়।
¤
দৈর্ঘ্যের দিক থেকে ব্রহ্মপুত্র নদের অবস্থান বিশ্বে কত তম?
:
২২ তম (২৮৫০ কিমি)।
¤
দৈর্ঘ্যের দিক থেকে গঙ্গা নদীর অবস্থান বিশ্বে কত তম?
:
৩০ তম (২৫১০ কিমি)।
¤
নদী গবেষণা ইনস্টিটিউট কোন মন্ত্রণালয়ের অধীনে?
:
পানিসম্পদ মন্ত্রণালয়ের অধীন।
¤
নদী গবেষণা ইনস্টিটিউট কত সালে প্রতিষ্ঠিত হয়? ***
:
১৯৭৭ সালে প্রতিষ্ঠিত।
¤
আগে নদী গবেষণা ইনস্টিটিউট-এর সদর দপ্তর কোথায় ছিল?
:
ঢাকা।
¤
বর্তমান নদী গবেষণা ইনস্টিটিউরটের সদর দপ্তর কোথায়? ***
:
হারুকান্দি ফরিদপুর।
¤
প্রতিবেশী দেশগুলোর সাথে কতটি আন্তঃসীমান্ত বা অভিন্ন নদী রয়েছে? ***
:
৫৮ টি।
¤
বাংলাদেশ ও ভারতের মধ্যে প্রবাহিত আনঃসীমান্ত নদী কতটি? ***
:
৫৫ টি।
¤
মিয়ানমার ও বাংলাদেশের মধ্যে প্রবাহিত আন্তঃসীমান্ত নদী কতটি? ***
:
৩ টি।
¤
কোন নদী ভুটান, ভারত এবং বাংলাদেশের মধ্য দিয়ে প্রবাহিত।
:
ধরলা ও দুধকুমার।
¤
ভুটান, ভারত, চীন ও বংলাদেশের মধ্য দিয়ে প্রবহিত নদী কোনটি?
:
ব্রহ্মপুত্র।
¤
নেপাল, ভারত, চীন ও বাংলাদেশের দধ্যে প্রবহিত নদী কোনটি?
:
গঙ্গ।
¤
বাংলাদেশ ও ভারতের মধ্যে যৌথ নদী কমিশন (JRC) গঠিত হয় কত সালে? **
:
১৯৭২ সালে।
¤
JRC এর পূর্ণরূপ কী?
:
Joint Rivers Commission.
¤
বাংলাদেশের দীর্ঘতম নদী প্রণালী কোনটি?
:
সুরমা-মেঘনা নদী প্রণাণী (৬৬৯ কিমি)।
¤
মিয়ানমার ও কক্সবাজারকে পৃথম করছে কোনটি? ***
:
নাফ নদী (৫৬ কিমি)।
¤
দেশের একমাত্র পানি বিদ্যুত কেন্দ্র কোনটি? ***
:
কর্ণফুলী পানি বিদ্যুৎকেন্দ্র।
¤
বাংলাদেশের অভ্যন্তরে উৎপত্তি ও শেষ নদী কতটি ও কী কী? ***
:
২ টি নদী (সাঙ্গু ও হালদা)
¤
দু’ভাগ হয়ে মেঘনা নদী কী নামে প্রবাহিত হয়েছে? **
:
সুরমা ও কুশিয়ারা।
¤
সুরমা ও কুশিয়ারা মিলিত হয়ে কী নাম ধারণ করেছে? **
:
কালনি নাম ধারণ করেছে।
¤
কালনি ভৈরব বাজারের নিকটে পুনরায় কী নাম ধারণ করেছে? *
:
মেঘনা মান ধারণ করেছে।
¤
ব্রহ্মপুত্র নদ তিব্বতে ও আসামে কী নামে পরিচিত? *
:
তিব্বতে সানপু এবং আসামে ডিহং।
¤
প্রতি সেকেন্ডে এক ঘনফুট পানির প্রবাহকে কী বলে? *
:
এক কিউসেক বলে।
¤
বুড়িগঙ্গা নদীর তীরে কত সালে বাকল্যান্ড বাধ নির্মাণ করা হয়? ***
:
১৮৬৪ সালে।
¤
দেশের একমাত্র প্রাকৃতিক মৎস্য প্রজনন কেন্দ্র কোনটি? ***
:
হালদা নদী (চট্টগ্রাম)।
¤
সাঙ্গু নদী কোন জেলার মধ্য দিয়ে প্রবাহিত হয়েছে? **
:
চট্টগ্রাম ও রাঙামিাটি।
¤
ভূমিকম্পের কারণে ১৭৮৭ সালে ব্রহ্মপুত্র নদের স্রোত পরিবর্তিত হয়ে কোন নদী উৎপত্তি লাভ করে?
:
যমুনা নদী উৎপত্তি লাভ করে।
¤
বাংলাদেশ থেকে ভারতে গিয়ে পুনরায় বাংলাদেশে ফিরে এসেছে কোন নদী?
:
মহানন্দা, পুনর্ভবা, আত্রাই, টাঙ্গন।
¤
দক্ষিণ তালপট্টি দ্বীপ কোন নদীর মোহনায় অবস্থিত? ***
:
হাড়িয়াভাঙ্গা নদীর মোহনায় অবস্থিত।
¤
বাংলাদেশে মোট নদীর সংখ্যা কতটি? ***
:
২৩০ টি।
¤
মহাস্থানগড় কোন নদীর তীরে অবস্থিত? ***
:
করতোয়া নদীর তীরে অবস্থিত।
¤
বাংলাদেশের প্রধান নদীবন্দর কোনটি? ***
:
নারায়ণগঞ্জ।
¤
মংলা বন্দর কোন নদীর তীরে অবস্থিত? **
:
পশুর।
¤
বাংলাদেশের সবচেয়ে খরস্রোতা নদী কোনটি? ***
:
কর্ণফুলী।
¤
মেঘনা নদীর মোহনায় কোন দ্বীপ অবস্থিত? ***
:
নিঝুম দ্বীপ অবস্থিত।
¤
বাংলাবান্ধা কোন নদীর তীরে অবস্থিত? ***
:
মহানন্দা ।
¤
কোন নদীতে জোয়ার-ভাঁটা হয় না? ***
:
কুমিল্লার গোমতী।
¤
বাংলাদেশের সবচেয়ে নাব্য নদী কোনটি? **
:
মেঘনা।
¤
যমুণার দীর্ঘতম উপনদী কোনটি? ***
:
করতোয়া।
¤
পদ্মার প্রধান উপনদী কোনটি? ***
:
মহানন্দা।
¤
উৎপত্তিস্থলে মেঘনার নাম কী? ***
:
বরাক নদী।
¤
ফেনী জেলার নামকরণ হয়েছে কোন নদীর নাম থেকে? **
:
ফেনী নদীর নাম থেকে।
¤
দেশে বর্ষা মৌসুমে নাব্য নদীপথ প্রায় কত কিমি?
:
৬০০০ কিমি।
¤
দেশে শুষ্ক মৌসুমে নাব্য নদীপথ প্রায় কত কিমি?
:
৩৮০০ কিমি।
¤
বাংলাদেশে থেকে ভারতে গেছে কয়টি নদী কী কী? ***
:
১ টি নদী (কুলিখ)।
¤
নদীর ভঙনে সর্বস্বান্ত জনগণ হল ?
:
নদী সিকস্তি।
¤
চর জাগলে যারা চাষাবাদ করতে যায় তারা কী?
:
নদী পয়স্তী।
¤
রাঙ্গামাটি জেলার কাপ্তাই হ্রদ হল? ***
:
কৃত্রিম হ্রদ।
¤
কর্ণফুলী পানি বদ্যুৎকেন্দ্র চালু হয় কত সালে? ***
:
১৯৬২ সালে।
¤
বাংলাদেশের প্রধান ও বৃহত্তম নদীবন্দর কোনটি? ***
:
নারায়ণগঞ্জ।
¤
বাংলাদেশের দীর্ঘতম নদী কোনটি? ***
:
মেঘনা।
¤
সাঙ্গু নদীর দৈর্ঘ্য কত?***   ১৭৩ কিমি।
¤
বাংলাদেশের কোন নদীতে পাশাপাশি দুই রং এর পানির স্রোত প্রবাহিত হয়?   যমুনা নদীতে।
¤
বাংলাবান্ধা কোন নদীর তীরে অবস্থিত?***   মহানন্দা।
¤
কোন নদীর মোহনায় নিঝুম দ্বীপ অবস্থিত?***   মেঘনা নদীর মোহনায়।
¤
ভূমিকম্পের ফলে ব্রহ্মপুত্র নদীর স্রোত কত সালে পরিবর্তিত হয়ে যমুনা নদী হয়?   ১৭৮৬ সালে।
¤
পাঁচটি নদীর মিলিতস্থান কোনটি?   আগুনমুখো।
¤
সুন্দরবনে বাংলাদেশ ও ভারতের সীমানা নির্ধারণকারী নদী কোনটি?**   হাড়িয়াভাঙ্গা
¤
মহাস্থানগড় কোন নদীর তীরে অবস্থিত?***   করতোয়া
¤
বাংলাদেশে আন্তর্জাতিক নদীর সংখ্যা কতটি?   ২টি (পদ্মা/গঙ্গা, ব্রহ্মপুত্র)
¤
রবীন্দ্র স্মৃতিবিজড়িত 'পতিসর' গ্রামটি কোন নদীর তীরে অবস্থিত?*   নাগর নদী।
¤
নাফ নদী বাংলাদেশ ও মায়ানমারের কোন দুটি জেলাকে পৃথক করেছে?***   কক্সবাজার ও আরাকান।
¤
কোন নদীটি একজন ব্যক্তির নামে নামকরণ করা হয়?   রূপসা (রূপ লাল সাহার)
¤
পদ্মা নদী কোন জেলার মধ্যদিয়ে বাংলাদেশে প্রবেশ করেছে?*   নবাবগঞ্জ (বৃহত্তম রাজশাহী)
¤
মেঘনা নদী কোন জেলার মধ্যদিয়ে প্রবেশ করেছে?   সিলেট।
¤
ব্রহ্মপুত্র নদ কোন জেলার মধ্যদিয়ে প্রবেশ করেছে?   কুড়িগ্রাম।
¤
তিস্তা নদী বাংলাদেশে প্রবেশ করেছে কোন জেলার মধ্যদিয়ে?   নীলফামারী।
¤
বাংলাদেশের সীমা থেকে কত কিমি উজানে তিস্তা নদীর উপর ব্যারেজ নির্মাণ করেন?   ৬৫ কিমি।
¤
ভারত ও বাংলাদেশের মধ্যকার অভিন্ন নদীর মধ্য কতটিতে ব্যারেজ নির্মাণ করেছে?   ৬টি (১ টিতে চলমান)
¤
প্রাচীন পুণ্ড্রবর্ধন নগরী কোন নদীর মোহনায় অবস্থিত?*   করতোয়া।
¤
সুরমা ও কুশিয়ারা কোন নদীর শাখা? **
:
আসামের বরাক।
ভারত কত সালে ফারাক্কা বাঁধ নির্মাণের পরিকল্পনা গ্রহণ করে?
:
১৯৫১ সালে।
ভারত কত তারিখে ফারাক্কা বাঁধ নির্মাণ কাজ শুরু করে? **
:
৩০ জানুয়ারি, ১৯৬১।
ফারাক্কা বাঁধ নির্মাণ কাজ কত সালে শেষ হয়?
:
১৯৭৪ সালে।
ভারত ফারাক্কা বাঁধ কত সালে পরীক্ষামূলকভাবে চালু করে? **
:
১৯৭৫ সালে।
ফারাক্কা বাঁধ কোথায় অবস্থিত? ***
:
মনোহরপুর (ভারত) অবস্থিত।
৫ বছর মেয়াদি যঙ্গার পানি বন্টন চুক্তি স্বাক্ষরিত হয় কত সালে?
:
১৯৭৭ সালে।
২ বছর মেয়াদি গঙ্গার পানি বন্টন চুক্তি স্বাক্ষরিত হয় কত তারিখে?
:
৪ অক্টোবর, ১৯৮২ সালে।
৩ বছর মেয়াদি গঙ্গার পানি বন্টন চুক্তি স্বাক্ষরিত হয় কত তারিখে?
:
২২ নভেম্বর, ১৯৮৫।
৩০ বছর মেয়াদি গঙ্গার পানি চুক্তি স্বাক্ষরিত হয় কত সালে?।
:
১৯৯৬ সালের ১২ ডিসেম্বর।
৩০ বছর মেয়াদি গঙ্গার পানি চুক্তি কার্যকর হয় কত তারিখে? ***
:
৪ নভেম্বর ১৯৯৭ সালে।
মওলানা ভাসানী মরণ ফাঁদ ফারাক্কা বাঁধের বিরুদ্ধে কত কখন লং মার্চ করেন? ***
:
১৯৭৬ সালের ১৬ মে।
ফারাক্কা দিবস কত তারিখে?
:
১৬ মে।
ফারাক্কা বাঁধের দৈর্ঘ্য কত?
:
৭,৩৬৩ ফুট ৬ ইঞ্চি।
তুইবাই ও তুইরয়ং নদীদ্বয়ের মিলিত স্রোতধারায় সৃষ্টি হয়েছে কোন নদী? ***
:
বরাক নদী।
ভারত কোন নদীর উপর টিপাইমুখ বাঁধ নির্মাণ করছে? ***
:
বরাক নদী ওপর।
টিপাইমুক বাঁধ ভারতের কোন রাজ্যে অবস্থিত? **
:
মণিপুর রাজ্যে অবস্থিত।
টিপাইমুক বাঁধের দৈর্ঘ্য কত?
:
১৫০০ ফুট বা ৫০০ মিটার।
টিপাইমুখ বাঁধের নির্মাণ কাজ উদ্বোধন করা হয় কত তারিখে? **
:
২৪ নভেম্বর ২০০৫।
টিপাইমুক বাঁধ সমুদ্র সমতল থেকে কত উচুতে অবস্থিত?
:
প্রায় ৫৯০ ফুট বা ১৮০ মি উঁচুতে অবস্থিত।
Copyright © Sabyasachi Bairagi