» কৃষিজ সম্পদ
» প্রাণী সম্পদ
» মৎস সম্পদ
» তেল ও গ্যাস
» শিল্প ও বাণিজ্য
» পানি সম্পদ
» বনজ সম্পদ
» ইপিজেড ও অর্থনীতি
the biggest site of
General Knowledge
for knowledge seekers

Agriculture Resources of Bangladesh
বাংলাদেশের কৃষি সম্পদ

» বাংলাদেশ কৃষিপ্রধান দেশ, এদেশের অধিকাংশ মানুষের প্রধান উপজীবিকা কৃষি। এ দেশের ৮০ ভাগ মানুষ প্রত্যক্ষ বা পরোক্ষভাবে কৃষির ওপর নির্ভরশীল। মোট দেশীয় আয়ের ২০ শতাংশ আসে কৃষি থেকে। » বাংলাদেশে ফসল তোলার ঋতু ৩ টি (ভাদোই, হৈমন্তিক ও রবি)। » চাষাবাদের উপর ভিত্তি করে বাংলাদেশের ঋতুকে ২ ভাগে (রবি ও খরিপ) ভাগ করা হয়েছে। রবি শস্য বলতে শীতকালীন শস্যকে বুঝায়, খরিপ শস্য বলতে গ্রীষ্মকালীন শস্যকে বুঝায়। » পাহাড়ি অঞ্চলে উপজাতি সম্প্রদায়ের ফসল উৎপাদনের এক বিশেষ পদ্ধতি হলো ঝুম চাষ। এ পদ্ধতিতে পাহাড়ের গায়ে ধাপে ধাপে গর্ত করে এক সাথে কয়েক প্রকার ফসলের বীজ বপন করা হয়। উপজাতিরা বছরে ২ বার ঝুম চাষ করে থাকে।
» বাংলাদেশ কৃষি গবেষণা প্রতিষ্ঠান (BARI - Bangladesh Agricultural Research Institute)গাজীপুরের জয়দেবপুরে ৪ আগস্ট, ১৯৭৬ সালে প্রতিষ্ঠিত। » বাংলাদেশ ধান গবেষণা প্রতিষ্ঠান (BRRI - Bangladesh Rice Research Institute)গাজীপুর জেলার জয়দেবপুর ১ অক্টোবর, ১৯৭০ সালে প্রতিষ্ঠিত। » সার্ক কৃষি তথ্য কেন্দ্র অবস্থিত ফার্মগেট, ঢাকা (১৯৮৯)।
» পাট উৎপাদনে বাংলাদেশ বিশ্বের মধ্যে দ্বিতীয় (প্রথম ভারত) এবং রপ্তানিতে দ্বিতীয়। এটি বাংলাদেশের প্রধান অর্থকরী ফসল। দেশে সর্বাধিক পাট উৎপন্ন হয় রংপুর জেলায়। পাটের প্রধান বাণিজ্য কেন্দ্র হলো নারায়ণগঞ্জে। » ড. মোহাম্মদ সিদ্দিকুল্লাহ পাট (৭০%) ও তুলা (৩০%) মিশ্রণে ১৯৮৯ সালে জুটন নামক এক ধরনের কাপড় আবিষ্কার করেন। » পাটের জিন রহস্য (জিন ম্যাপিং) আবিষ্কার করেন বাংলাদেশের বিজ্ঞানী ড. মাকসুদুল আলম। » বাংলাদেশ ভূখণ্ডে প্রথম চা চাষ আরম্ভ হয় ১৮৪০ সালে। চট্টগ্রাম ক্লাব প্রাঙ্গণে বাণিজ্যিক ভিত্তিতে সিলেটের মালনীছড়ায় দেশের প্রথম চা বাগান প্রতিষ্ঠিত হয় ১৮৫৪ সালে। চা দেশের দ্বিতীয় অর্থকরী ফসল। চট্টগ্রাম জেলায় ১৯৭৭ সালে বাংলাদেশ চা বোর্ড প্রতিষ্ঠিত হয়। » সবচেয়ে বেশি রেশম গুটির চাষ হয় চাঁপাইনবাবগঞ্জ জেলায়। রেশম চাষকে ইংরেজিতে বলা হয় সেরিকালচার। রাজশাহী জেলায় ১৯৭৭ সালে দেশে রেশম বোর্ড প্রতিষ্ঠিত হয়। » কক্সবাজারের রামুতে ১৯৬১ সালে দেশে প্রথম রাবার বাগান করা হয় এবং এখানে দেশের সর্বাধিক রাবার উৎপন্ন হয়।
» বাংলাদেশের প্রধান খাদ্যশস্য ধান। দেশের আবাদি জমির ৮০ ভাগেই ধান চাষ করা হয়। বাংলাদেশে ধানের শ্রেণিভেদ হলো ৪টি আমন, আউশ, বোরো ও ইরি। » বাংলাদেশে সর্বাধিক গম উৎপন্ন হয় রংপুর জেলায়। তবে গম গবেষণা কেন্দ্র প্রতিষ্ঠিত হয়েছে দিনাজপুর জেলার নশিপুর। » বাংলাদেশের যশোর জেলা তুলা চাষের জন্য বিশেষ উপযোগী বাংলাদেশে ১৯৬০ ১৯৮০, ১৯৮৬, ১৯৯৭, ২০০২ এবং ২০০৮ মোট ছয়বার কৃষিশুমারি অনুষ্ঠিত হয়।
কৃষি সম্পদ বিষয়ক প্রশ্ন : উত্তর
»
কৃষি কাজের জন্য সর্বাপেক্ষা উপযোগী মাটি কি?** : পলি মাটি
»
বাংলাদেশের মোট কৃষি জমির পরিমান কত? : ৩ কোটি ৬৬ লাখ ৫৭ হাজার একর
»
বাংলাদেশের মোট চাষাবাদযোগ্য জমির পরিমান কত? : ২ কোটি ১ লাখ ৯৪ হাজার একর
»
বাংলাদেশে চাষের অযোগ্য চাষের জমির পরিমান কত? : ২৭ লাখ ১৩ হাজার ২২২ একর
»
বাংলাদেশের শস্য ভাণ্ডার বলা হয় কোন জেলাকে? : বরিশাল জেলাকে
»
বাংলাদেশের প্রধান অর্থকরী ফসল কি? ** : পাট
»
সোনালী আঁশ বলা হয় কাকে? : পাটকে
»
বাংলাদেশে পাট গবেষণা ইনস্টিটিউট প্রতিষ্ঠিত হয় কোথায় অবস্থিত? : ১৯৫১ সালে ঢাকার শেরে বাংলা নগরে
»
বাংলাদেশে পাট গবেষণা বোর্ড কোথায় অবস্থিত? : মানিকগঞ্জ জেলায়
»
পাটের শ্রেণিবিভাগ কি? : ৩ টি, হোয়াইট, তোসা ও মেসতা
»
বাংলাদেশে সবচেয় বেশি পাট জন্মে কোন জেলায়? : রংপুর জেলায়
»
পাট উৎপাদনে বিশ্বে প্রথম দেশ কোনটি? : ভারত, দ্বিতীয় বাংলাদেশ
»
পাট রপ্তানিতে শীর্ষ দেশ কোনটি? : বাংলাদেশ
»
একটি কাঁচা পাটের গাইডের ওজন কত? : সাড়ে তিন মণ
»
পৃথিবীর সবচেয়ে বড় পাটকল আদমজি বন্ধ হয় কবে? : ৩০ জুন, ২০০২, প্রতিষ্ঠিত ১৯৫১ সালে
»
প্রাচ্যের ডাণ্ডি বলা হয় কোন জেলাকে? *** : নারায়ণগঞ্জ জেলাকে
»
পাটের জন্ম রহস্য আবিষ্কার করেন কোন বিজ্ঞানি? *** : ড. মাকসুদুর আলম
»
জুটন (৭০% পাট ও ৩০% তুলা) আবিষ্কার করেন কে? ** : ড. মোঃ সিদ্দিকুল্লাহ
»
আন্তর্জাতিক পাট সংস্থা IJO (International Jute Organization) বিলুপ্ত হয় কত সালে? : ১১ এপ্রিল, ২০০০ সালে প্রতিষ্ঠত ১৯৮৪, ফার্মগেট, ঢাকা
»
IJSG (International Jute Study Group) প্রতিষ্ঠিত হয় কখন? : ২৭ এপ্রিল, ২০০২ সালে
»
বিশ্বে ধান উৎপাদনে বাংলাদেশের অবস্থান কততম? *** : চতুর্থ
»
সবচেয়ে বেশী পাট উৎপন্ন হয় কোন জেলায়? * : ময়মনসিংহ
»
রবি শস্য বলতে বুঝায় কোন শস্যকে? * : শীতকালীন শস্যকে
»
খরিপ শস্য বলতে বুঝায় কোন শস্যকে? * : গ্রীষ্মকালীন শস্যকে
»
বাংলাদেশের অর্থনীতিতে কৃষিখাতের অবদান কত শতাংশ? : ২১.৯১%
»
বাংলাদেশের শস্য ভান্ডার বলা হয় কোন জেলাকে? *** : বরিশাল
»
গম গবেষণা কেন্দ্র কোথায় অবস্থিত? *** : দিনাজপুর জেলার নশিপুরে
»
বাংলাদেশে সবচেয়ে বেশি গম উৎপাদিত হয় কোন জেলায়? *** : রংপুর জেলায়
»
গম উৎপাদনে শীর্ষ দেশ কোনটি? : চীন, রপ্তানীতে শীর্ষে যুক্তরাষ্ট্র
»
উন্নত জাতের গমের নাম কি? : অগ্রণী, আনন্দ আকবর, কাঞ্চন, দোয়েল, বরকত, বলাকা, সোনালিকা, জোপাটিকা, শতাব্দী
»
উন্নত জাতের ভুট্টার নাম কি? : বর্ণালী, শুভ্র, উত্তরণ
»
বাংলাদেশে বানিজ্যিকভাবে চা চাষ শুরুা হয় কোন জেলায়? *** : ১৯৫৪ সালে
»
বাংলাদেশের দ্বিতীয় অর্থকরী ফসল কোনটি? : চা
»
বাংলদেশের প্রথম চা বাগান কোনটি? *** : সিলেটের মালনিছড়া
»
সবচেয়ে বেশী চা জন্মে কোন জেলায়? *** : মৌলভীবাজার (৯১টি বাগান), দ্বিতীয় হবিগঞ্জ (২৩টি বাগান)
»
বাংলাদেশের চা গবেষণা কেন্দ্র কোথায় অবস্থিত? *** : মৌলভীবাজার জেলার শ্রীমঙ্গলে
»
বাংলাদেশে মোট চা বাগানের সংখ্যা কত? ** : ১৬৬ টি
»
চা চাষের জন্য প্রয়োজন কোন ধারনের মাটি? * : অম্লধর্মী বেলে দোআশঁ মাটি
»
অম্ল মাটি ফসলের জন্য কেমন? : অনুর্বর
»
বাংলাদেশে সর্বপ্রথম চা চাষ শুরু হয় কত সালে? ** : ১৮৪০ সালে (চট্টগ্রাম ক্লাব প্রাঙ্গণ)
»
বাংলাদেশে বাণিজ্যিক ভিত্তিতে প্রথম চা চাষ শুরু হয় কত সালে? *** : ১৮৫৭ সালে
»
সম্প্রতি উৎপাদিত দেশের অর্গানিক চা এর নাম কি? ** : মীনা চা উৎপাদন শুরু পঞ্চগড় জেলায়
»
চা উৎপাদনে বাংলাদেশের অবস্থান কততম? * : ১১ তম, প্রথম ভারত
»
চা রপ্তানিতে বাংলাদেশের অবস্থান কততম? * : দশম, প্রথম কেনিয়া
»
চা জাদুঘর অবস্থিত কোথায়? : মৌলভিবাজারের শ্রীমঙ্গলে
»
বাংলাদেশের সবচেয়ে বেশী রেশম উৎপন্ন হয় কোন জেলায়? ** : চাঁপাইনবাবগঞ্জে
»
বাংলাদেশ রেশম বোর্ড কোথায় অবস্থিত? *** : চাঁপাইনবাবগঞ্জ জেলায় ১৯৭৭ সালে
»
রেশম চাষকে ইংরেজিতে কি বলা হয়? : সিরিকালচার
»
রেশম পোকার বৈজ্ঞানিক নাম কি? : Bombyx mori
»
উন্নত জাতের তামকের নাম কি? *** : সুমাত্রা, ম্যানিলা
»
রেশম পোকা বা মথ কি খেয়ে বেঁচে থাকে? : তুঁত গাছের পাতা
»
বাংলাদেশে সবচেয়ে বেশী তামাক জন্মে কোন জেলায়? ** : রংপুরে
»
বাংলাদেশে সবচেয়ে বেশী তুলা জন্মে কোন জেলায়? ** : যশোরে
»
উন্নত জাতের তুলার নাম কি? ** : রূপালি, ডেলফোজ
»
বাংলাদেশের সবচেয়ে বড় সেচ প্রকল্প কোনটি? ** : তিস্তা বাধ প্রকল্প
»
বাংলাদেশে ধান গবেষনা কেন্দ্রের সংক্ষিপ্ত নাম কি? *** : BRRI, গাজিপুর, প্রতিষ্ঠিত ১৯৭০ সালে
»
BRRI এর পূর্ণরূপ কি? *** : Bangladesh Rice Research Institute
»
বাংলাদেশের প্রধান খাদ্যশস্য কি? : ধান
»
বাংলাদেশে ধান প্রধানত কত শ্রেণির ও কিকি? : চার (আমন, আউশ, বোরো ও ইরি)
»
বাংলাদেশের মোট আবাদি জমির কত ভাগে ধান চাষ করা হয়? : ৮০ ভাগ
»
সবচেয়ে বেশি ধান উৎপাদন করা হয় কোন জেলায়? *** : ময়মনসিংহ জেলায়
»
ধান উৎপাদনে বিশ্বে বাংলাদেশের অবস্থান কততম? ** : চতুর্থ, প্রথম চীন
»
ধান রপ্তানিতে শীর্ষ দেশ কোনটি? *** : থাইল্যান্ড আমদাণীতে শীর্ষ দেশ চীন
»
আন্তর্জাতিক ধান গবেষণা ইনস্টিটিউট (IRRI) প্রতিষ্ঠিত হয় কত সালে? *** : ম্যানিলা, ফিলিপাইন, ১৯৬০ সালে
»
১০০ কেজি ধানে কত কেজি চাল পাওয়া যায়? : ৬৬ কেজি
»
BADC বলতে কি বুঝায়? : বাংলাদেশে কৃষি উন্নয়ন সংস্থা
»
BADC এর পূর্ণরূপ কি? : Bangladesh Agricultural Development Corporation
»
কাটারীভোগ চাল উৎপাদে বিখ্যাত কোন জেলা? : দিনাজপুর জেলা
»
বাংলাদেশের সবচেয়ে বেশি চালকল রয়েছে কোন জেলায়? : নওগাঁ জেলায়
»
উন্নত জাতের ধানের নাম কি? : ব্রি, চান্দিনা, মালা, বিপ্লব, ব্রিশাইল, প্রগতি, মুক্তা, ময়না, বালাম
»
হরি ধান আবিষ্কার করেন কে? * : হারীপদ কাপালী
»
চাল ভিজালেই ভাত হয়ে যায় কোন ধান থেকে? : অঘনিবোরা
»
মঙ্গা এলাকার জন্য উপযুক্ত ধান কোনটি? ** : বিআর ৩৩
»
বাংলাদেশে ডাল গবেষণা কেন্দ্র অবস্থিত কোথায় অবস্থিত? *** : ঈশ্বরদী, পাবনা প্রতিষ্ঠিত হয় ১৯৮৭ সালে
»
বাংলাদেশে সবচেয়ে বেশি আলু উৎপন্ন হয় কোন জেলায়? ** : মুন্সিগঞ্জ জেলায়
»
কোন দেশ থেকে বাংলাদেশে আলু আনা হয়? * : হল্যান্ড
»
কোন ব্রিটিশ গভর্নরের উদ্যোগে বাংলাদেশে আলু চাষের বিস্তার হয়? : ওয়ারেন হেস্টিংস
»
আলুর বৈজ্ঞানিক নাম কি? : Solanum tuberosum
»
দেশে প্রথম রাবার গাছ লাগানো হয় কোথায়? ** : কক্সবাজার জেলার রামুতে ১৯৬১ সালে
»
বাংলাদেশের রাবার জোন হিসেবে খ্যাত কোন অঞ্চল? : বাইশারী, বান্দরবান যাত্রা শুরু ১৯৮২ সালে
»
বাংলাদেশ ইক্ষু গবেষণা ইনস্টিটিউট (BSRI) প্রতিষ্ঠিত হয় কত সালে? *** : ১৯৫১ সালে সদর দপ্তর ঈশ্বরদী, পাবনা
»
BSRI এর পূর্ণরূপ কি? : Bangladesh Sugarcane Research Institute
»
বাংলাদেশে আম গবেষণা কেন্দ্র কোথায় অবস্থিত? ** : চাঁপাইনবাবগঞ্জ জেলায় স্থাপিত হয় ১৯৮৫ সালে
»
আম উৎপাদনে বাংলাদেশের অবস্থান কততম? * : ১৪ তম
»
উন্নত জাতের আমের নাম কি? ** : মোহনভোগ, ল্যাংড়া, গোপালভোগ, হিমসাগর, মহানন্দা
»
উন্নত জাতের মরিচের নাম কি? : যমুনা
»
উন্নত জাতের তরমুজের নাম কি? : মধুবালা
»
উন্নত জাতের টমেটোর নাম কি? ** : বাহার, মানিক, রতন
»
উন্নত জাতের আলুর নাম কি? : ডায়মন্ড, কার্ডিনেল, কুফরী, সিন্দুরী
»
উন্নত জাতের বাঁধা কপির নাম কি? : গোল্ডেন ক্রস, কে ওয়াই ক্রস, গ্রীন এক্সপ্রেস, ড্রাম হেড
»
উন্নত জাতের বেগুনের নাম কি? : ইওরা, শুকতারা, তারাপুরী
»
তেলবীজ ও কন্দাল ফসল গবেষণা কেন্দ্র কোথায় অবস্থিত? ** : জয়দেবপুর, গাজীপুর
»
উদ্যানতত্ত্ব গবেষণা কেন্দ্র কোথায় অবস্থিত? : জয়দেবপুর, গাজীপুর
»
মসলা গবেষণা কেন্দ্র কোথায় অবস্থিত? *** : শিবগঞ্জ, বগুড়া
»
ডাল গবেষণা কেন্দ্র কোথায় অবস্থিত? *** : ঈশ্বরদী, পাবনা
»
সর্বশেষ কৃষিশুমারী অনুষ্ঠিত হয় কবে? : ২০০৮ সালে
»
বাংলাদেশ কৃষি গবেষণা ইনষ্টিটিউট প্রতিষ্ঠিত হয় কত সালে? * : ১৯৭১ সালে
»
বাংলাদেশে কৃষি গবেষণা ইনষ্টিটিউট কার্যক্রম শুরু করে কবে? : ১৯৭৩ সালে
»
সিলেটে পাহাড়িয়া অঞ্চলে আনারস চাষের ফলে অবস্থা কি হয়? : মাটির উর্বতা বৃদ্ধি পায়
»
কৃষি জমিতে মাটির অম্লতা হ্রাস পায় কি করলে? ** : চুন ব্যবহারের মাধ্যমে
»
দোআঁশ মাটিতে সমান পরিমান থাকে কি উপাদান? * : বালি, পলি ও কাঁদা
»
পানি ধারণ ক্ষমতা সর্বাপেক্ষা বেশী কোন মাটিতে? * : দোআঁশ মাটিতে
»
মাটির পিএইচ হলো কি নির্দেশ করে? : এসিড নির্দেশক
»
স্বার্ণা সার আবিষ্কার করেন কে? ** : ড. আব্দুল খালেক, ১৯৮৭ সালে
»
স্বার্ণা সারের বৈজ্ঞানিক নাম কি? : ফাইটো হরমোন ইনডিউসার
»
আদর্শ মাটিতে কত ভাগ জৈব পদার্থ থাকে? : ৭ ভাগ
Copyright © Sabyasachi Bairagi