logo
the biggest site of
General Knowledge
for knowledge seekers

Forestry Resources of Bangladesh
বাংলাদেশের বনজ সম্পদ

» বাংলাদেশে মোট বনভূমির পরিমান** : ২৫,০০০ বর্গ কি.মি।
» বাংলাদেশে জনপ্রতি বনভুমির পরিমান*** : ০.০১৮ হেক্টর।
» বাংলাদেশের বন এলাকা : ৪টি অঞ্চলে বিভক্ত যথা-
১। পাহাড়ী বনাঞ্চল ২। ম্যনাগ্রোভ বনাঞ্চল
৩। সমতল এলাকার শাল বনাঞ্চল ৪। গ্রামীন বন।
» পাহাড়ী বনাঞ্চলের আয়তন : ১৫,৬৬,৯৩৫ একর।
» ম্যানগ্রোভ বনের আয়তন : ১৪,০৫,০০০ একর।
» শাল বনাঞ্চলের আয়তন : ২,৮১,৯৫৩ একর।
» বাংলাদেশের জাতীয় বননীতি প্রনীত হয় : ১৯৭৯ সালে।
» ভাওয়াল জাতীয় উদ্যান প্রতিষ্ঠিত হয় : ১৯৮২ সালে
» দেশের প্রথম ইকোপার্ক ও বোটানিক্যাল গার্ডেন উদ্ধোধন করা হয়*** : ১৭ জানু ২০০১, চন্দ্রনাথ পাহাড়ে।
» এশিয়ার বৃহত্তম এবং দেশের প্রথম ইকোপার্ক ও বোটানিক্যাল গার্ডেন*** : সীতাকুন্ড ইকোপার্ক।
» বলধা গর্ডেন** : ঢাকায় অবস্থিত
» দেশের প্রথম সাফারি পার্ক*** : কক্সবাজারের চকোরিয়ার বঙ্গবন্ধু শেখ মুজিব সাফারি পার্ব
» দেশের দ্বিতীয় সাফারি পার্ক* : গাজীপুরে অবস্থিত
» বাংলাদেশের বৃহত্তম বনভূমি** : পার্বত্য চট্টগ্রামের বনভূমি।
» বাংলাদেশের দ্বিতীয় বৃহত্তম বনভুমি** : সুন্দরবন। (একক হিসেবে বৃহত্তম)
» বাংলাদেশের তৃতীয় বনাঞ্চল : ধুপুর জঙ্গল।
» সবচেয়ে বেশী বৃদ্ধি পায় : বাঁশ জাতীয় গাছ।
» ভাওয়াল বনাঞ্চল অবস্থিত : গাজীপুর জেলায়।
» মধুপুর বনাঞ্চলের প্রধান বৃক্ষ** : শাল বা গজারী।
» সুর্যের কন্যা বলা হয়*** : তুলা গাছকে।
» চিরহরিৎ বন বলা হয়*** : পার্বত্য বনাঞ্চল।
» বরেন্দ্র ভুমিতে সবচেয়ে বেশি পাওয়ড যায়** : শাল গাছ।
» বাংলাদেশের দীর্ঘতম গাছের নাম*** : বৈলাম গাছ।
» সুন্দরবনের মোট আয়তন*** : ৬০১৭ বর্গ কি. মি।
» বাংলাদেশের বন গবেষণা কেন্দ্র** : চট্টগ্রামে।
» উপকুলীয় সবুজ বেষ্টনীয় বনাঞ্চলে সৃজন করা হয়েছে*** : ১০টি জেলায়।
» ক্রান্তীয় বনাঞ্চলের প্রধান গাছ হল : শাল বা গজারী।
» পরিবেশ রক্ষার ক্ষেত্রে গাছটি ক্ষতিকারক*** : ইউক্লিপটাস।
» কোন দেশের পরিবেশের ভারসাম্য রক্ষার জন্য বনাঞ্চল থাকা প্রয়োজন মোট ভুমির*** : ২৫ শতাংশ।
» বাংলাদেশের বনাঞ্চলের পরিমাণ মোট ভুমির*** : ১৭%।
» মধুপুরের বনকে বলা হয়* : পত্রঝরা বন।
» দেশের প্রথম ইকোপার্ক ও বোটানিক্যাল গার্ডেন উদ্ধোধন করা হয় :  
» সুন্দরবন বিস্তৃত : বাংলাদেশ-ভারত।
» দেশের ম্যানগ্রোভ বন*** : সুন্দরবন
» দেশের উপকূলীয় বন** : সুন্দরবন
» বিশ্বের বৃহত্তম ম্যানগ্রোভ বন*** : সুন্দরবন
» সুন্দরবনের মোট আয়তন*** : ১০,০০০বর্গ কি.মি.
» বাংলাদেশের অন্তর্গত সুন্দরবনের আয়তন*** : ৬০১৭ বর্গ কি.মি বা ২৪০০ বর্গমাইল।
» বাংলাদেশের অন্তর্গত সুন্দরবনের আয়তন*** : মোট সুন্দরবনের ৬২%
» সুন্দর বনের অভ্যন্তরে অবস্থিত : করমজল, দুবলার চর, হিরণপয়েন্ট
» সুন্দরবন অবস্থিত*** : খুলনা, সাতক্ষীরা,বাগেরহাট,পটুয়াখালী, ও বরগুনা জেলায়।
» সুন্দরবনের উল্লেখযোগ্য বৃক্ষ : সুন্দরী, গরান, গেওয়া, পশুর,ধুন্দল, কেওড়া, গোলপাতা
» সুন্দরবন থেকে প্রচুর পরিমান : মধু আহরণ করা হয়।
» সুন্দরবনের প্রধান বৃক্ষ : সুন্দরী।এ গাছের নামেই বনের নামকরণ করা হয়েছে।
» দিয়াশলাইয়ের কাঠি ও বাক্স প্রস্তুত হয়** : গেওয়া কাঠ থেকে ।
» ধুন্দল গাছের কাঠ থেকে প্রস্তুত করা হয় : পেন্সিল।
» রং প্রস্তুত করা হয়*** : গরান গাছের ছাল থেকে ।
» রেলের স্লিপার তৈরী হয় : গর্জন কাঠ খেকে
» দেশের মোট জ্বালানির ৬০ভাগ পুরণ হয় : বনাঞ্চল হতে সংগৃহীত কাঠ ও লাকড়ি হতে।
Copyright © Sabyasachi Bairagi