logo
the biggest site of
General Knowledge
for knowledge seekers

বাংলাদেশের মুক্তিযুদ্ধ ও স্বাধীনতা
Freedom Fight of Bangladesh

» ২ মার্চ, ১৯৭১ সালে বাংলাদেশের পতাকা প্রথমবারের মত উত্তোলন করা হয় ঢাকা বিশ্ববিদ্যালয়ের বটতলায় এক ছাত্র সমাবেশে। » পতাকা উত্তোলন করেন তৎকালীন ডাকসু ভিপি আ.স.ম আবদুর রব।
» ৭ মার্চ, ১৯৭১ তারিখে রেসকোর্স ময়দানে শেখ মুজিবুর রহমানের ঐতিহাসিক ভাষণ দেন। » ২৫ মার্চ, ১৯৭১ প্রেসিডেন্ট ইয়াহিয়া খান 'অপারেশন সার্চ লাইট' এর নামে বাঙালি নিধন অভিযান শুরু করেন। » প্রথম আক্রমণের শিকার হয় রাজারবাগ পুলিশ লাইন, বিডিআর পিলখানা এবং ঢাকা বিশ্ববিদ্যালয়। » ২৫ মার্চ রাতে শেখ মুজিবুর রহমান গ্রেফতার হন। » গ্রেফতার হওয়ার পূর্বে বঙ্গবন্ধু শেখ মুজিবুর রহমান ১৯৭১ সালের ২৬ মার্চ প্রথম প্রহরে অর্থাৎ ২৫ মার্চ ১২.৩০ মিনিটে বঙ্গবন্ধু শেখ মুজিবুর রহমান বাংলাদেশের স্বাধীনতার ঘোষণা বার্তা ওয়ারলেস যোগে চট্টগ্রামের জহুর আহমেদ চৌধুরীকে প্রেরণ করেন। » চট্টগ্রাম বেতার থেকে আওয়ামী লীগ নেতা এমএ হান্নান বঙ্গবন্ধুর স্বাধীনতা ঘোষণার বাণী স্বকণ্ঠে প্রচার করেন। » পরে ২৭ মার্চ চট্টগ্রামে অবস্থিত অষ্টম ইস্টবেঙ্গল রেজিমেন্টের মেজর জিয়াউর রহমান ঐ ঘোষণা পুনঃপাঠ করেন। » বঙ্গবন্ধুকে গ্রেপ্তার করে করাচীতে নিয়ে যাওয়া হয়।
» সিলেটের তেলিয়াপাড়া চা বাগানে কর্নেল এম.এ.জ. ওসমানীর নেতৃত্বে মুক্তিফৌজ গঠন করা হয়। » ১৩,০০ সৈন্য নিয়ে মুক্তিফৌজ গঠিত হয়। » এর মধ্যে সামরিক সৈন্য ৫,০০০ জন এবং বেসরকারী সৈন্য ৮,০০০ জন। » ৯ এপ্রিল, ১৯৭১ মুক্তিফৌজকে 'মুক্তিবাহিনী' নামকরণ করা হয়। » এম.এ.জি. ওসমানী মুক্তিবাহিনীর কমান্ডার ইন চিফ হিসেবে নিয়োগের ঘোষণা দেয়া হয় ১২ এপ্রিল, ১৯৭১। » 'মুক্তিবাহিনী' এর চীফ অব স্টাফ লে. কর্ণেল (অব) আবদুর রব এবং ডেপুটি চীফ অব স্টাফ গ্রুপ ক্যাপ্টেন এ.কে. খন্দকার। » কুষ্টিয়ার মেহেরপুর মহকুমার বৈদ্যনাথতলা ইউনিয়নের ভবেরপাড়া গ্রামের আম্রকাননে ১০ এপ্রিল, ১৯৭১ সালে প্রবাসী বাংলাদেশ সরকার গঠন করা হয়। » এই ঘোষণাপত্র অনুযায়ী ৯১৭২ সালের ১৫ ডিসেম্বর পর্যন্ত দেশ পরিচালিত হয়। » ভারতীয় নৌবাহিনীর অধীনে ১৫০ জন স্বেচ্ছাসেবী প্রয়োজনীয় প্রশিক্ষণ গ্রহণ করে বাংলাদেশের নৌপথে সৈন্য ও অন্যান্য সমর সরঞ্জাম পরিবহনের ব্যবস্থা বানচাল করার লক্ষ্যে জাহাজ ও নৌযান ধ্বংস করার উদ্দেশ্য গঠিত হয় অপারেশন জ্যাকপটের।
» ১৪ ডিসেম্বর ১৯৭১ পাকিস্তানের প্রেসিডেন্ট ইয়াহিয়া খান পূর্বাঞ্চলীয় কমান্ডার লেঃ জেলারেল নিয়াজীর নিকট পত্রে যুদ্ধ বন্ধ এবং আত্মসমর্পণের প্রস্তুতি গ্রহণের নির্দেশ দেন। » তদানুযায়ী ১৬ ডিসেম্বর, ১৯৭১ রমনা রেসকোর্স ময়দানে (বর্তমান সোহরাওয়ার্দী উদ্যানে) জেনারেল নিয়াজী যৌথ কমান্ডের ইস্টার্ন প্রধান লেঃ জেনারেল জগজিৎ সিং আরোরার নিকট আত্মসমর্পণ করেন। » আত্মসমর্পণ অনুষ্ঠানে বাংলাদেশের পক্ষে নেতৃত্ব দেন গ্রুপ ক্যাপ্টেন এয়ার ভাইস মার্শাল এ.কে. খন্দকার। » বিকাল ৪.৩১ মিনিটে অনুষ্ঠিত আত্মসমর্পণের মধ্যদিয়ে পাক বাহিনীর ৯৩,০০০ সৈন্য আত্মসমর্পণ করে।
¤
১৯৭৩ সালের ১৫ ডিসেম্বর সরকারি গেজেট নোটিফিকেশন অনুযায়ী বাংলাদেশের স্বাধীনতা যুদ্ধের ৭ জন বীর সন্তানকে মরণোত্তর বীরশ্রেষ্ঠ উপাধিতে ভূষিত করা হয়।***
¤
খেতাবপ্রাপ্ত মুক্তিযোদ্ধা ৬৭৬ জন।***
¤
বীর উত্তম ৬৮ জন, বীর বিক্রম ১৭৫ জন, বীর প্রতীক ৪২৬ জন।***
¤
একমাত্র বিদেশী বীর প্রতীক ডব্লিউ এস ওডারল্যান্ড।***
¤
মহিলা বীর প্রতীক ২ জন। তারামন বিবি ও ডা. সেতারা বেগম।***
¤
মুক্তিবাহিনীর প্রধান সেনাপতি এম এ জি ওসমানী। **
¤
২১ নভেম্বর, ১৯৭১ তারিখ ভারত-বাংলাদেশ যৌথবাহিনী গঠিত হয়।
¤
যৌথ কমান্ডের সেনাধ্যক্ষ জেনারেল জগজিৎ সিং অরোরা।*
¤
পাকিস্তান পক্ষের সেনাপতি জেনারেল এ কে খান নিয়াজী।*
¤
আত্মসমর্পণ অনুষ্ঠানে বাংলাদেশের প্রতিনিধিত্ব করেন এয়ার কমান্ডার এ কে খন্দকার।**
¤
বাংলাদেশের স্বাধীনতা দিবস ২৬ মার্চ।*
¤
বাংলাদেশের বিজয় দিবস ১৬ ডিসেম্বর।*
¤
বীরশ্রেষ্ঠদের মধ্যে প্রথম শহীদ হন মোস্তফা কামাল।
¤
বীরশ্রেষ্ঠ মতিউর রহমানের দেহাবশেষ পাকিস্তানের করাচি থেকে বাংলাদেশে আনা হয় ২৪ জুন ২০০৬।
¤
বীরশ্রেষ্ঠদের মধ্যে সর্বশেষে শহীদ হন মহিউদ্দিন জাহাঙ্গীর ১৮ ডিসেম্বর ১৯৭১।
¤
স্বাধীনতা যুদ্ধে অবদানের জন্য সর্বোচ্চ রাষ্ট্রীয় পুরস্কার ‌বীরশ্রেষ্ঠ।**
¤
একমাত্র বিদেশী বীর প্রতীক হোয়াইল হেমার ওয়াডারল্যান্ড অস্ট্রেলিয়ার নাগরিক।**
¤
মুক্তিযুদ্ধ চলাকালীন বাংলাদেশের নিজস্ব ডাকটিকেট প্রবর্তন করা হয় ২৯ জুলাই ১৯৭১।
¤
প্রথম ডাকটিকিটের নকশা করেন বিমান মল্লিক।*
¤
বুদ্ধিজীবী হত্যাকান্ড ঘটে ১৪ ডিসেম্বর ১৯৭১।***
¤
ম্যাডিসন স্কোয়ারে কনসার্টের মাধ্যমে বাংলাদেশের জন্য অর্থ সংগ্রহ করেছিলেন জর্জ হ্যারিসন।***
¤
মুক্তিযুদ্ধের উপর রচিত September on Jessore Road কবিতাটি রচনা করেন মার্কিন কবি অ্যালান গিনসবার্গ।***
¤
৩১ মার্চ ২০০১, সোহরার্দী উদ্যানে স্থায়ীভাবে শিখা চিরন্তন স্থাপন করা হয়।
¤
সরকারি তথ্য মতে মুক্তিযুদ্ধার সংখ্যা ১ লক্ষ ৮৬ হাজার ৭৯০ জন।
¤
মুক্তিযুদ্ধ বিষয়ক মন্ত্রণালয়ের ইংরেজি নাম Ministry of Liberation War Affairs.
¤
বঙ্গবন্ধু শেখ মুজিবুর রহমান ৭ মার্চে, ১৯৭১ সালের ভাষণের মাধ্যমে স্বাধীনতার পরোক্ষ ঘোষণা দেন।
¤
বঙ্গবন্ধু শেখ মুজিবুর রহমান ২৫ মার্চ রাত বারোটার পর অর্থাৎ ২৬ মার্চ, ১৯৭১ তারিখে স্বাধীনতার ঘোষণা দেন। ***
¤
বাংলাদেশের পতাকা প্রথম উত্তলন করা হয় ২ মার্চ, ১৯৭১ তারিখ। উত্তলন করেন ঢাকা বিশ্ববিদ্যালয়ে তৎকালীন ডাকসু ভিপি আ.স.ম আব্দুর রব। ***
¤
৩ মার্চ, ১৯৭১ পল্টন ময়দানে এখানে বঙ্গবন্ধু শেখ মুজিবুকে বাংলাদেশের সর্বাধিনায়ক বলে ঘোষণা করা হয়। ***
¤
শেখ মুজিবুর রহমান ঐতিহাসিক ৭ মার্চের ভাষণ দেন রেসকোর্স ময়দানে (বার্তমান সোহরাওয়ার্দী উদ্যান)। **
¤
নয়াদিল্লিস্থ পাকিস্তান হাইকমিশনের দুইজন কূটনীতিক কে.এম. সাহাবুদ্দিন ও আমজাদুল হক ৬ এপ্রিল, ১৯৭১ তারিখে বাংলাদেশের প্রতি আনুগত্য প্রকাশ করেন।
¤
সর্বপ্রথম কোন বিদেশী মিশন হিসেবে ভারতের পশ্চিমবঙ্গ রাজ্যের রাজধানী কলকাতাস্থ বাংলাদেশ মিশনে ১৮ এপ্রিল, ১৯৭১ বাংলাদেশের পতাকা উত্তোলন করা হয়।
¤
২৫ মার্চ ও ১৬ ডিসেম্বর, ১৯৭১ সালের তারিখ দুটি ছিল বৃহস্পতিবার। *
¤
বাংলাদেশের মুক্তিযুদ্ধের প্রধান সেনাপতি এম.এ.জি ওসমানী।
¤
প্রবাসী বাংলাদেশ সরকারের ক্যাম্প বা অফিস ছিল ভারতের কলকাতাস্থ ৮ নম্বর থিয়েটার রোডে।
¤
১০ এপ্রিল, ১৯৭১ তারিখ মুজিবনগরে স্বাধীনতা ঘোষণা করা হয়।
¤
১৭ এপ্রিল, ১৯৭১ তারিখ বাংলাদেশের গণপ্রজাতন্ত্রের ঘোষণা করা হয়েছিল।
¤
অস্থায়ী সরকার গঠিত হয় ১০ এপ্রিল ১৯৭১।***
¤
অস্থায়ী সরকার শপথ গ্রহণ করে ১৭ এপ্রিল ১৯৭১।***
¤
অস্থায়ী সরকারের শপথ বাক্য পাঠ করান অধ্যাপক ইউসুফ আলী। ***
¤
অস্থায়ী সরকারের সদস্য সংখ্যা ৬ জন।
¤
বাংলাদেশের অস্থায়ী সরকার গঠিত হয়েছিল কুষ্টিয়ার মেহেরপুরের বৈদ্যনাথতলার ভবেরপাড়া গ্রামে (বর্তমান মুজিবনগর) ***
¤
প্রবাসী সরকারের প্রধানমন্ত্রী ছিলেন তাজউদ্দিন আহমদ। ***
¤
প্রবাসী সরকারের রাষ্ট্রপতি ছিলেন বঙ্গবন্ধু শেখ মুজিবুর রহমান। ***
¤
প্রবাসী সরকারের প্রথম অস্থায়ী প্রেসিডেন্ট ছিলেন সৈয়দ নজরুল ইসলাম। ***
¤
ইয়াহিয়া খানের উক্তি "এ দেশের মানুষ চাই না, মাটি চাই।" *
¤
অস্থায়ী সরকারের ঘোষণাপত্র পাঠ করেন অধ্যাপক ইউসুফ আলী। ***
¤
জেনারেল ওসমানী ১৮ এপ্রিল, ১৯৭১ তারিখ বাংলাদেশের সেনাপ্রধান নিযুক্ত হন। *
¤
১৯৭১ সালে ঢাকায় কর্মরত ব্রিটিশ সাংবাদিক সায়মন ড্রিং।
¤
বাংলাদেশের মুক্তিযুদ্ধের সময় ঢাকা শহর ২ নম্বর সেক্টরের অধীনে ছিল। **
¤
মুক্তিযুদ্ধের সময় ইস্টবেঙ্গল রেজিমেন্ট প্রথম সশস্ত্র প্রতিরোধ গড়ে তোলে।
¤
১৯ মার্চ, ১৯৭১ গাজীপুরে প্রথম মুক্তিযুদ্ধের সশস্ত্র প্রতিরোধ সংগঠিত হয়।
¤
বাংলাদেশের মুক্তিযুদ্ধে একজন ইতালিয় নাগরি মাদার মারিও ভেরেনজি ৪ এপ্রিল, ১৯৭১ মৃত্যুবরণ করেন। **
¤
শেখ মুজিবুর রহমানকে পাকিস্তানের করাচি শহরের মিয়াওয়ালি কারাগারে বন্দি রাখা হয়।
¤
ভারত-বাংলাদেশ যৌথ বাহিনী গঠিত হয় ২১ নভেম্বর, ১৯৭১।
¤
ভারত-বাংলাদেশ যৌথ কমান্ডের সেনাধ্যক্ষ ছিলেন জেনারেল জগজিৎ সিং অরোরা।
¤
পাকিস্তানি পক্ষের নেতৃত্ব দেন জেনারেল আমির আব্দুল্লাহ খান নিয়াজী (এ.কে. খান)।
¤
প্রকৌশল বিশ্ববিদ্যালয়ের শেরে বাংলা হলে প্রথম জাতীয় পতাকার নকশা তৈরি হয়।
¤
৬ ডিসেম্বর, ১৯৭১ যশোর জেলা প্রথম শত্রুমুক্ত হয়। ***
¤
বুদ্ধিজীবীদের ওপর ব্যাপক হত্যাকাণ্ড সংঘটিত হয় ১৪ ডিসেম্বর, ১৯৭১। ১৪ ডিসেম্বর শহীদ বুদ্ধিজীবী দিবস। ***
¤
পাকিস্তান সেনাবাহিনীর হাতে শহীদ দার্শনিক হলেন ড. জিসি দেব।
¤
শেখ মুজিবুর রহমান ৮ জানুয়ারি, ১৯৭২ তারিখ পাকিস্তান কারাগার থেকে মুক্তি পান। ***
¤
পাকিস্তান কারাগার থেকে শেখ মুজিবুর রহমান ইংল্যান্ড ও ভারত হয়ে দেশে ফিরে আসেন ১০ জানুয়ারি, ১৯৭২। ***
¤
২৬ মার্চকে প্রথম জাতীয় দিবস হিসেবে ঘোষণ করা হয় ৩ অক্টোবর, ১৯৮০।
¤
বাংলাদেশে প্রথম রাষ্ট্রীয় অতিথি হিসেবে বঙ্গভবনে আসেন ইন্দিরা গান্ধী (ভারত)।
¤
পাকিস্তানের ৯৩ হাজার সৈন্য যৌথ বাহিনীর কাছে আত্মসমর্পণ করে। **
¤
বঙ্গবন্ধু শেখ মুজিবুর রহমান মুক্তিযুদ্ধ কল্যাণ ট্রাস্ট প্রতিষ্ঠা করেন।
¤
ঢাকার সেনানিবাসস্থ মুক্তিযুদ্ধ জাদুঘরের নাম বিজয় কেতন।
¤
এমবি পদ্মা ও এমভি পলাশ নামে ২ টি জাহাজ নিয়ে এ.কে খন্দকারের নেতৃত্বে বাংলাদেশ নৌবাহিনী গঠিত হয় ২৮ সেপ্টেম্বর, ১৯৭১। ***
¤
ভারত থেকে একটি ডাকোটা, একটি আর্টার বিমান এবং একটি অ্যালুয়েট হেলিকপ্টার নিয়ে বাংলাদেশ বিমানবাহিনী গঠিত হয়। *
¤
দুইজন বিদেশী ইয়েভগেনি ইয়েভ তুসেস্কোর (রাশিয়া) এবং অ্যালেন গিনসবার্গ (যুক্তরাষ্ট্র) বাংলাদেশের স্বাধীনতা যুদ্ধের জন্য কবিতা লেখেন।
¤
মুক্তিযুদ্ধের সময় বাংলাদেশ বেতার কেন্দ্রের পরিচালক ছিলেন শামসুল হুদা চৌধুরী।
¤
বেসরকারি পর্যায়ে ১ ডিসেম্বর মুক্তিযোদ্ধা দিবস পালিত হয়। **
¤
পূর্ব পাকিস্তানের গভর্নর ও মন্ত্রীরিপরিষদ ঢাকা ত্যাগ করেন ১১ ডিসেম্বর, ১৯৭১।
¤
৬ ডিসেম্বর, ১৯৭১ তারিখ ভারত-বাংলাদেশ যৌথ বাহিনীর আক্রমণে পাকিস্তানের সবকটি বিমান ধ্বংস হয়। *
¤
ফরাসি সাহিত্যিক আঁদ্রে মঁয়রা বাংলাদেশের মুক্তিযুদ্ধে অংশ নেয়ার ইচ্ছা প্রকাশ করেন।
¤
১৯৭১ সালের ২৫ মার্চ পাকবাহিনীর সামরিক আগ্রাসনের (বাঙালি) নাম অপারেশন সার্চলাইট। ***
¤
৫ টি রাজনৈতিক দলের সমন্বয়ে অস্থায়ী সরকার গঠিত হয়েছিল এবং অস্থায়ী সরকারের উপদেষ্টামণ্ডলীর সদস্য ছিল ৯ জন।
¤
ভারতীয় বাহিনী নদী পারাপারের সুবিধার জন্য পিটি ৬৭ ট্যাঙ্ক ব্যবহার করে।
¤
স্বাধীনতাযুদ্ধের পর ভারতীয় সৈন্য বাংলাদেশ থেকে প্রত্যাহার শুরু হয় ১২ মার্চ, ১৯৭২। *
¤
২৩ অক্টোবর, ২০০১ তারিখ মুক্তিযুদ্ধবিষয়ক মন্ত্রণালয় (Ministry of Liberation War Affairs) গঠিত হয়। *
¤
স্বাধীনতা যুদ্ধে অবদানের জন্য 'বীর প্রতীক' খেতাবপ্রাপ্ত মহিলা মুক্তিযোদ্ধা তারামন বিবি ও সেতারা বেগম। ***
¤
তারামন বিবি ১১ নং সেক্টরে (ময়মনসিংহ ও টাঙ্গাইল) এবং সেতারা বেগম ৪ নং সেক্টরে (সিলেট) যুদ্ধ করেন। **
¤
দেশের একমাত্র খেতাবপ্রাপ্ত মুক্তিযোদ্ধা ইউ কে চীং (বীর বিক্রম)। **
¤
বীরশ্রেষ্ঠ মতিউর রহমানের কবর ছিল পাকিস্তানের করাচি মাসরুর বিমান ঘাঁটিতে।
¤
২৪ জুন, ২০০৬ তারিখে বীরশ্রেষ্ঠ মতিউর রহমানের কবর (মৃতদেহ) বাংলাদেশে আনা হয়।
¤
বীরশ্রেষ্ঠ হামিদুর রহমানের কবর ভারতের আমবাসা এলাকায় থেকে ১০ ডিসেম্বর, ২০০৭ তারিখ বাংলাদেশে আনা হয়।
¤
১৯৭১ সালে বাংলাদেশের মুক্তিযুদ্ধের সময় পাকিস্তানি নৌ-শক্তিকে ধ্বংস করার জন্য পরিচালিত অভিযান 'অপানেশন জ্যাকপট'। **
¤
একমাত্র বিদেশি বীর প্রতীক খেতাবপ্রাপ্ত মুক্তিযোদ্ধা হোয়াইল হেমার ওয়াডারল্যান্ড (নাগরিক- অস্ট্রেলিয়ার, জন্ম- নেদারল্যান্ড)। ***
¤
১৯৭১ সালে মার্কিন যুক্তরাষ্ট্রের নিউইয়র্কের ম্যাডিসন স্কোয়ারে (১ আগস্ট, ১৯৭১) কনসার্ট অর বাংলাদেশের আয়জন করেন জর্জ হ্যারিসন (যুক্তরাজ্য) ও পণ্ডিত রবি শংকর (ভারত)। ***
¤
জর্জ হ্যারিসনের ব্যান্ডদলের নাম বিটলস (প্রতিষ্ঠিত হয় ১৯৬০)। *
¤
জর্জ হ্যারিসনের চিতাভষ্ম ভারতের গঙ্গা নদীতে বিসর্জন দেওয়া হয়।
¤
মুক্তিযুদ্ধে আত্মসমর্পণের দলিলে স্বাক্ষর করেন যৌথ কমান্ডের প্রধান জেনারেল জগজিৎ সিং আরোরা ও পাকিস্তানের পক্ষে জেনারেল এ.কে. নিয়াজী অনুষ্ঠানে বাংলাদেশের পক্ষে নেতৃত্ব দেন এয়ার কমান্ডার এ.কে. খন্দকার।
¤
রেসকোর্স ময়দানে মুক্তিযুদ্ধের আত্মসমর্পণের দলিল স্বাক্ষরিত হয়।
¤
স্বাধীন বাংলা বেতার কেন্দ্র থেকে 'চরমপত্র' পাঠ করেন এম.আর. আখতার মুকুল।
¤
১৯৯৭ সালে সিলেটে কাঁকন বিবি নামক মহিলা মুক্তিযোদ্ধার সন্ধান পাওয়া যায়।
¤
বীরশ্রেষ্ঠ মতিউর রহমান টি-৩৩ (ছদ্মনাম- ব্লু বার্ড) বিমানটি ছিনিয়ে নিয়ে দেশে ফিরতে চেয়েছিলেন। ***
¤
দেশের বাইরে প্রথম মুক্তিযুদ্ধ লাইব্রেরি উদ্বোধন করা হয় ৫ মে, ২০১১।
¤
স্বাধীনতা যুদ্ধকালে বাংলাদেশী যুবকদের নিয়ে গঠিত বাহিনী হলো 'মুজিব বাহিনী'। *
Village and Union of Birshresto
বীরশ্রেষ্ঠদের নাম, গ্রাম ও ইউনিয়ন
২০০৭ সালে বীরশ্রেষ্ঠদের নামকে চিরস্মরণীয় করে রাখতে বীরশ্রেষ্ঠদের নিজ গ্রাম ও ইউনিয়নের নাম তাদের নামে করা হয়।
  পূর্বনাম বর্তমান নাম অবস্থান
»
রামনগর মতিউর নগর রায়পুর, নরসিংদী
»
খোর্দ খালিশপুর হামিদ নগর মহেশপুর, ঝিনাইদহ
»
মৌটুপী মোস্তফা কামাল নগর আলীনগর, ভোলা
»
বাগপাচড়া রুহুল আমিন নগর সোনাইমুড়ী, নোয়াখালী
»
সালামতপুর রউফ নগর মধুখালী, ফরিদপুর
»
মহিষখোলা নূর মোহাম্মদ নগর সদর, নড়াইল
বীরশ্রেষ্ঠ ক্যাপ্টেন মহিউদ্দিন জাহাঙ্গীরের গ্রামের নাম তার দাদার নামে হওয়ায় তার ইউনিয়ন আগরপুর বদলে মহিউদ্দন জাহাঙ্গীর ইউনিয়ন হয়েছে।
Force and Commander of Freedom Fight
মুক্তিবাহিনীর ফোর্স কমাণ্ডার
মুক্তিবাহিনীর তিনজন শ্রেষ্ঠ সেক্টর কমান্ডারের নামানুসারে তিনটি ফোর্সের নামকরণ করা হয়।
  নাম কমান্ডার দায়িত্বকাল সদর দপ্তর
»
‘জেড ফোর্স’ জিয়াউর রহমান জুলাই-ডিসেম্বর তেলডালা
»
‘সএ ফোর্স’ কে এম শফিউল্লাহ সেপ্টেম্বর-ডিসেম্বর আগরতলা
»
‘কে ফোর্স’ খালেদ মোশারফ সেপ্টেম্বর-নভেম্বর হাজামারা
Copyright © Sabyasachi Bairagi